• ১৫ শ্রাবণ ১৪২৮, শনিবার
  • 31 July 2021, Saturday
শ্মশানেও তোলাবাজি, অবশেষে সাইনবোর্ড লাগাচ্ছে কর্পোরেশন

শ্মশানেও তোলাবাজি, অবশেষে সাইনবোর্ড লাগাচ্ছে কর্পোরেশন

ওয়েব ডেস্ক প্রতিনিধি

Updated On: 12 Jun 2021 01:13 am

মৃতের পরিবারের থেকে টাকা চাওয়ার একাধিক অভিযোগে চাপের মুখে কলকাতা কর্পোরেশন। বৃহস্পতিবারই ৫ কর্মীকে বরখাস্ত করেছে কর্পোরেশন কর্তৃপক্ষ। তবু যেন অভিযোগ থামছে না। শেষমেষ এই ঘটনা আটকাতে একাধিক সিদ্ধান্ত নিতে বাধ্য হলো কর্পোরেশনের স্বাস্থ্য বিভাগ। কলকাতা কর্পোরেশন সূত্রে খবর, করোনা পরিস্থিতি ভয়াবহ হওয়ার পর থেকেই মানুষের অসহায় অবস্থার সুযোগ তুলছে বেশ কিছু অসাধু স্বাস্থ্যকর্মী। তখন থেকেই শববাহী গাড়ি বা শ্মশান সব জায়গায় মোটা টাকা না ফেললে স্বাভাবিকভাবে কাজ হচ্ছে না। কোথাও বাড়তি সুযোগ দেওয়া টোপ দিয়ে আদায় হচ্ছিল টাকা। এই কর্মীদের অত্যাচারে ক্রমশ ক্ষুব্ধ হয়ে উঠছিলেন সাধারণ নাগরিকরা। আর চাপ বাড়ছিল কর্তৃপক্ষের উপরে।


প্রায় দিনই এমন নানা অভিযোগ আসতে থাকে কলকাতা কর্পোরেশনের কন্ট্রোল রুমে। অবশেষে ঘুম ভেঙে ব্যবস্থা নিতে বাধ্য হয়েছে স্বাস্থ্য বিভাগ। গত বৃহস্পতিবার ৫ কর্মীকে মৃতের পরিবারের থেকে টাকা নেওয়ার অপরাধে বরাখাস্ত করা হয়েছে। তবে বদলায়নি এই সমস্ত অসাধু কর্মীদের তোলাবাজির দাপট। তাই কর্তৃপক্ষ আরও কিছু সিদ্ধান্ত নিল শুক্রবার। স্বাস্থ্য বিভাগের এক বৈঠক থেকে এদিন সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে, তোলাবাজি রুখতে কলকাতার সবকটি শ্মশানে লাগানো হবে হোর্ডিং। যাতে লেখা থাকবে, ‘দেহ সৎকারের জন্য কাউকে টাকা দিতে হবে না।’ কেউ টাকা চাইলে কর্পোরেশনকে জানানোর আবেদন। শববাহী গাড়ির নির্দিষ্ট করে দেওয়া ভাড়ার থেকে একটাকাও বেশি না দিতে। কেউ যদি টাকা ছাড়া দাহকাজে নারাজ হন সঙ্গে সঙ্গে কলকাতা কর্পোরেশনের কন্ট্রোল রুমে ফোন করে অভিযোগ জানাতে পারেন মৃতের পরিবার। সেখানে থাকবে পৌর আধিকারিক থেকে স্বাস্থ্য বিভাগের দায়িত্বে থাকা প্রশাসকমণ্ডলীর সদস্যের ফোন নম্বর। শ্মশানের সব কর্মীকে দেওয়া হবে অ্যাপ্রন। যাতে কে শ্মশানকর্মী তাঁদের সহজে চিহ্নিত করা যায়। অবশ্য এসবের পরেও কতটা তোলাবাজি আটকানো যাবে তা নিয়ে পৌর আধিকারিকদের মধ্যে সংশয় আছে।













অনুদিত 



গণশক্তি

Recent Comments:

Leave a Comment: