• ১ বৈশাখ ১৪২৮, বৃহস্পতিবার
  • 15 April 2021, Thursday
Mutton Nihari ছবি: লেখক

শীতের দাওয়াতে মাটন নিহারি

সহেলী রায়

Updated On: 25 Dec 2020 12:00 am


রেসিপি: মাটন নিহারি

 

গির্জায় বড়দিনের জিঙ্গেল বেল বেজে গেছে কচিকাচাদের ভোরের স্বপ্নে প্রায়ই স্লেজগাড়ি ভর্তি উপহার উপচে পড়ছে। ল্যাপটপে ঝড় তুলতে তুলতে আলোচনা চলছে কোন পানীয় দিয়ে উদ্‌যাপন করা যায় বিশেষ দিনটি। কিচেন কুইনরা অবশ্য কেক বেকে অভিনবত্ব এনে কেমন তাক লাগানো যায় তাই নিয়ে চুলচেরা বিশ্লেষণে ব্যস্ত। মা, কাকিমাদের দেখেছি সামান্য ময়দা, ডিম, বেকিং পাউডার, চিনি, ভ্যানিলা এসেস্ন সহযোগেই ম্যাজিক দেখিয়ে দিতেন। ইদানীং ফ্লুরি’জ, নাহুম’জ সব একে একে ঢুকে পড়েছে রান্নাঘরে। টুটিফ্রুটি, রেসিন্স, অ্যাপ্রিকট, প্লাম, অরেঞ্জ জুস, নাটস থেকে নানারকম ওয়াইন পর্যন্ত ছুঁতমার্গ সরিয়ে হাজির ওভেনের কাছাকাছি। এরমধ্যেই হঠাৎ করে প্রবল শীতের কামড়। শৈত্যপ্রবাহের আশঙ্কা। গৃহিণীদের কপালে ভাঁজ। কেক তো বেক হল। জীবাণু সংক্রমণ থেকে রক্ষার উপায় কী? এখন সেসব ভেবে করলার জুস খেয়ে উৎসবের আমেজ নষ্ট করা যায় না, কাজেই নিহারি।

আরবি শব্দ নাহারঅর্থাৎ সকাল থেকে এসেছে নিহারি। যে বিশেষ পাত্রে বা ডেকচিতে সারা রাত ধরে নিহারি তৈরি হয়, তাকে বলে শাব ডেগনিহারি শুধু রোগ প্রতিরোধ করে তা নয়এটি সর্দি-কাশি এবং জ্বরের ঘরোয়া টোটকা হিসেবেও ব্যবহৃত হয়। পদটির উৎপত্তি আওয়াধি না মুঘল ঘরানায়, তা নিয়ে প্রায় মতবিরোধচলে। ১৯৪৭-এর পর মূলত মোজাহির আদিবাসীদের হাত ধরে পদটি পাকিস্তানে যায় এবং সঙ্গেসঙ্গেই জনপ্রিয়তা পায়। আর সেই জনপ্রিয়তার হাত ধরে পদটি অনেক দেশেই আজ সমাদৃত। আজ খানা খাজানায় হয়ে যাক মাটন নিহারি।

উপকরণ:

মাটন: ৭০০ গ্রাম

গোটা জিরে: ১/২ চামচ

সা জিরে: ১/২ চামচ

গোটা গোলমরিচ, লবঙ্গ, দারচিনি, এলাচ: ২ থেকে ৩টি করে

তেজপাতা: ২টো

শুকনো লঙ্কা: ৩টি

রসুন বাটা: ১ চামচ

আদা বাটা: ১ চামচ

কাঁচালঙ্কা: ৩টি

পিয়াঁজ কুচি: ১/২ কাপ

ধনে গুঁড়ো: ১/২ চামচ

হলুদ গুঁড়ো: ১/২ চামচ

নুন: স্বাদমতো

জল: ৬ কাপ

জায়ফল ও জয়িত্রি গুঁড়ো: ১/২ চামচ

ময়দা: ১/৪ কাপ

সাদা তেল: দু’ চামচ

রসুন কুচি: তিনটি

ধনেপাতা কুচি: এক চামচ

ভাজা জিরে গুঁড়ো: ১/২ চামচ

পাতিলেবুর রস: ২ চামচ



 

প্রণালী:

প্রেসার কুকারে মাংস, জিরে, সা জিরে, গরম মশলা, আদা বাটা, রসুন বাটা, তেজ পাতা, কাঁচা লঙ্কা, শুকনো লঙ্কা, জায়ফল, জয়িত্রি, হলুদ, ধনে গুঁড়ো, নুন, পিঁয়াজ কুচি ও পাঁচ কাপ জল দিয়ে এক ঘণ্টা মতো রান্না করতে হবে। অন্য একটি শুকনো প্যানে ময়দা দু তিন মিনিট ভেজে এক কাপ জল মিশিয়ে প্রেসারের ঢাকনা খুলে দিয়ে দিতে হবে। এবার প্যানে তেল গরম করে তাতে রসুন কুচি, পিঁয়াজ কুচি শুকনো লঙ্কা ভেজে সবশুদ্ধ গরম তেলটি প্রেসারে দিয়ে ছোঁক দিতে হবে মিনিট পাঁচেক রেখে তাতে ভাজা গুঁড়োমশলা, ধনেপাতা কুচি ও পাতিলেবুর রস দিয়ে নামিয়ে নিলেই তৈরি মাটন নিহারি

বড়দিনে অতিথি অভ্যাগতদের স্বাগতম কেক দিয়ে করলেও রাতের খাবারে গরম গরম পরোটার সঙ্গে নিহারি খাইয়ে জিতে নিতেই পারেন কিচেন কুইন সম্মান স্বাদ এবং স্বাস্থ্য সবেতেই যে ঘরণীদের একচেটিয়া অধিকার, মানতেই হবে সে কথা উৎসব হোক বা সাধারণ দিন সব মুহূর্তের কেন্দ্রবিন্দু হয়ে উঠুন শুধু আপনি 

Recent Comments:

Leave a Comment: