• ১ বৈশাখ ১৪২৮, বৃহস্পতিবার
  • 15 April 2021, Thursday
cmsaysgaddar ছবি: ইন্টারনেট

মুখ্যমন্ত্রীর 'গদ্দার' ইস্যুতে উত্তাল রাজ্য রাজনীতি

ওয়েব ডেস্ক প্রতিনিধি

Updated On: 03 Apr 2021 12:48 am

দ্বিতীয় দফায় নিজের কেন্দ্র নন্দীগ্রামে বিধানসভা নির্বাচন মিটতেই, মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় শুক্রবার উত্তরবঙ্গে যান নির্বাচনী প্রচারের জন্য। এদিন কোচবিহার, নাটাবাড়ি, ফালাকাটায় প্রচার সভা করেন তিনি।


এই সভা থেকেই তিনি নিজের দলের প্রার্থীদের "গদ্দার" বলে উল্লেখ করেন। শুধু তাই নয়, অন্তত ২০০ টি আসনে জয় প্রার্থনা করেন। 


গত লোকসভা নির্বাচনে উত্তরবঙ্গে তৃণমূলকে হারিয়ে জয়ী হয় বিজেপি। রাজনৈতিক মহলের মত, এই ঘটনার গুরুত্ব স্মরণ করেই মমতা ব্যানার্জি শুক্রবার জনসভায় বক্তব্য রাখেন।


এর আগে তিনি বলেছিলেন ২৯৪ টি আসনে তিনি নিজেই প্রার্থী। অথচ এখন সেই প্রার্থীদের ভেতরে গদ্দার লুকিয়ে আছে বলে তিনি দাবি করছেন।


কোচবিহারের জনসভায় তিনি বলেন, "২০০ টির বেশি আসন চাই। নইলে গদ্দারদের কিনে নিয়ে সরকার গড়বে বিজেপি। আগেও গদ্দারদের ওরা টাকা দিয়ে কিনেছে। তৃণমূল ২০০ আসন না পেলে আবার টাকা দিয়ে গদ্দারদের কিনে নেবে ওরা।"


মুখ্যমন্ত্রীর এই আশঙ্কা যে অমূলক নয় তা প্রমাণ হয় তৃণমূল প্রার্থী কানহাইয়া লাল আগারওয়ালের বক্তব্যে। কানহাইয়া লালকে সাংবাদিকরা প্রশ্ন করেন, "তৃণমূল সরকারে না আসলে, এমএলএ হয়ে কী ভাবে রায়গঞ্জের উন্নয়ন করবেন?" উত্তরে তিনি বলেন, "যদি ভোটে জেতার পর তৃণমূল কংগ্রেসের সরকার গঠন না হয়, তবে রায়গঞ্জবাসীর সঙ্গে কথা বলে সিদ্ধান্ত নেব।"


কানাহাইয়া লালের এহেন বক্তব্যে রাজনৈতিক মহলে আলোড়ন তৈরী হয়েছে। অনেকে প্রশ্ন করছেন, তাহলে কি রাজ্যে তৃণমূলের প্রার্থীরা আসলে বিজেপির হয়ে ভোটে লড়ছেন? যদি তাঁরা ভোটে জয়ী হন, তাহলে পরে বিজেপিতেই যুক্ত হবেন?


সূত্রের খবর, তৃণমূলের ভোট পরামর্শদাতা প্রশান্ত কিশোর প্রার্থী তালিকায় মুখ্যমন্ত্রীর কাছে উল্লেখ করে দিয়েছিলেন, কাদের প্রার্থী না করা হলে বিজেপিতে যোগ দিয়ে দেবে। তাই অনেক প্রার্থীকে অনিচ্ছা সত্ত্বেও প্রার্থী তালিকায় রাখতে হয় তৃণমূলকে।


এত কিছুর পরেও প্রচারের মঞ্চ থেকে দলনেত্রীকে নিজের দলের প্রার্থীদেরই "গদ্দার" বলতে হওয়ায়, উত্তাল রাজ্য রাজনীতি। ইতিমধ্যে কটাক্ষ করতে শুরু করেছে বিরোধী দলগুলি।

তাদের দাবি, তৃণমূলের সম্পূর্ণ বিজেপি-করণ এখন শুধুমাত্র সময়ের অপেক্ষা।

Recent Comments:

Leave a Comment: